বিষে বিষক্ষয়

বিষে বিষক্ষয় 

পর্ন-আসক্তি ছাড়ার জন্য পর্ন ওয়েবসাইট ব্লক করার সফটওয়্যার বা অ্যাপ্স ইনস্টল করা খুবই জরুরি। “পর্ন দেখতে মন চাইলো, হাতের মুঠোয় হাইস্পিড ইন্টারনেট, দুটো ক্লিক, তারপর পর্ন ভিডিওর বিশাল ভান্ডার” এ রকম অবস্থায় থাকলে পর্ন আসক্তি থেকে বের হয়ে আসা দুঃসাধ্য৷ এই লেখায় আমরা আপনাদের এমন কিছু সফটওয়্যার, অ্যাপ্সের সন্ধান দেবো, যা দিয়ে আপনি অনলাইনের ফিতনাহ মোকাবেলার রসদ পেয়ে যাবেন। 

K9সফটওয়্যার

যতগুলো পর্ন ব্লকিং সফটওয়্যার আছে তাদের মধ্যে K9 Web Protection সফটওয়্যার আমাদের সবচেয়ে পছন্দের। এ K9 সফটওয়্যার সকল কাজের কাজি। শুধু এ একটি সফটওয়্যার ইন্সটল করেই আপনি আপনার পিসিকে পর্নসাইটে প্রবেশের জন্য অভেদ্য করে ফেলতে পারবেন ইন শা আল্লাহ! K9 সফটওয়্যার ইন্সটলের টিউটোরিয়াল– http://bit.ly/2FCWxl3 K9 সফটওয়্যার ডাউনলোড করুন এখান থেকে– http://bit.ly/1lgZmes K9 সফটওয়্যার ইন্সটল করার পিডিএফ টিউটোরিয়াল পাবেন এখানে– http://bit.ly/2CvZ8LA 

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে পর্ন সাইট ব্লক করা

খুবই জনপ্রিয় এক পর্ন সাইট Women and Teck শিরোনামের লেখায় বলেছে, তীদের ভিযিটরদের মধ্যে শতকরা ৭২ জনই মোবাইল ফোন ব্যবহার করে তাদের সাইটে ব্রাউয করে থাকে। ২০১৭ সালে করা জুনিপার রিসার্চ থেকে দেখা যাচ্ছে। প্রায় ২৫ কোটি মানুষ মোবাইল ফোন অথবা ট্যাবলেট ব্যবহার করে পর্ন ভিডিও দেখেছে। ২০১৩ সালের তুলনায় যা প্রায় শতকরা ৩০ ভাগ বেশি। স্মার্টফোনের উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে স্মার্টফোন ব্যবহার করে পর্ন দেখার পরিমাণ। একটা মোবাইল ফোন সঙ্গে রাখতেই হয়, ল্যাপটপ বা পিসি থাকা ততটা জরুরি না, আবার মোবাইল ফোন দামেও সস্তা। সাইযে ল্যাপটপ বা পিসির চেয়ে অনেক ছোট হওয়ায় যেকোনো জায়গীতেই নিয়ে যাওয়া যায়, বাথরুমে, কাঁথার নিচে, আড়ালে-আবডালে, চিপায়-চাপীয়–সবখানেই। কাজেই পর্ন দেখার মাধ্যম হিসেবে মোবাইল ফোন যে পর্ন-আসক্তদের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে থাকবে তা বলাই বাহুল্য। বাচ্চাকাচ্চাদেরও পর্ন-আসক্তির সম্ভাব্য একটা মাধ্যম হচ্ছে স্মার্ট ফোন। বাচ্চাকাচ্চা, টিনেইজার থেকে শুরু করে সকল বয়সী মানুষকে পর্নের অন্ধকার জগৎ থেকে দূরে রাখার জন্য ইন্টারনেট ফিল্টারিং সিস্টেমের সাহায্য নেয়া খুবই জরুরি। পিসিতে পর্ন সাইট ব্লক করার জন্য K9 নামের অসাধারণ একটা সফটওয়্যার আছে। কিন্তু আফসোসের বিষয় হলো সবচেয়ে বেশি পর্ন সাইটে ব্রাউয করা হয় যে মোবাইল ফোন দিয়ে, সেই মোবাইল ফোনে পর্ন সাইট ব্লক করার জন্য তেমন ভালো কোনো অ্যাপ্স নেই। যেগুলো আছে সেগুলোও স্বয়ংসম্পূর্ণ না বা ফ্রি না। টাকা দিয়ে কিনতে হয়। টাকাটা বড় কথা না, বড় কথা হচ্ছে অনলাইনে অ্যাপ্স কেনার জটিলতা এবং সেই সাথে অ্যাগুলোর স্বয়ংসম্পূর্ণ না হওয়া। এ জটিলতা থেকেই স্মার্টফোনগুলোতে আর পর্ন ব্লকিং অ্যাপ্স ইন্সটল করা হয়ে ওঠে না। অ্যাপ্স বানানোতে ওস্তাদ এমন ভাইদের কাছে অনুরোধ থাকবে আপনার এ বিষয়টি নিয়ে একটু ভাবুন। আল্লাহ্ আপনাদের যে যোগ্যতা দিয়েছেন সেটা কাজে লাগিয়ে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় কিন্তু অবহেলিত এই ব্যাপারটিতে একটু মনোযোগ দিন। সমগ্র মুসলিম উম্মাহ তথা মানবজাতি আপনাদের দিকে চেয়ে আছে। আল্লাহ্ ওপর ভরসা করে কাজে হাত দিন, আল্লাহ্ সহজ করে দেবেন ইন শা আল্লাহ্। জোড়াতালি দিয়ে কীভাবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনে পর্ন সাইট ব্লক করা যায়, চলুন আলোচনা করা যাক :

১) ওপেন DNS Address পরিবর্তনের মাধ্যমে। কেবল ওয়াইফাই দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করলে এ পদ্ধতিতে পর্ন সাইট ব্লক করা যাবে। মোবাইল ডাটা দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করলে এই পদ্ধতি ব্যবহার করে পর্ন সাইট ব্লক করা যাবে না। ভিডিও টিউটোরিয়াল– http://bit.ly/2mwVkD5

২) স্পিন ব্রাউয়ারের মাধ্যমে এটি আমাদের পছন্দের পদ্ধতি। বেশ কার্যকরী। প্রয়োজনীয় এই অ্যাপ্সগুলো নামিয়ে নিন প্লে স্টোর থেকে, ইউটিউবের ফিতনাহ থেকে রক্ষা ইউটিউবের ফিতনাহ নিয়ে আমরা আগেই আলোচনা করেছি। পিসির জন্য K9 সফটওয়্যার ইন্সটল করে নিন। ইউটিউবের অশ্লীল কিংবা যৌন উত্তেজক ভিডিও থেকে রক্ষা পাবার আরেকটি ভালো একটা উপায় হলো সাজেস্টেড ভিডিও লিস্ট অশ্লীলতা মুক্ত রাখা। ইউটিউব আপনার সাজেশান লিস্টে যে ভিডিওগুলো দেখায় তী মূলত কিছু জিনিসের ওপর ভিত্তি করে দেয়। ওরা চায় যে আপনি যে রুচির লোক আপনাকে সে রকম ভিডিও পরিবেশন করতে। আর এ জন্যই আপনি যদি বিভিন্ন ইসলামিক ভিডিও বার বার দেখে থাকেন, তাহলে তারা ওই ধরনের ভিডিওগুলো ডানপাশের সাইডবারে দেখাতে থাকে। অশ্লীল ভিডিওর ক্ষেত্রেও একই নীতি৷ দ্বিতীয়ত, ইউটিউবে অসংখ্য ভিডিও চ্যানেল থেকে যে যে চ্যানেল আপনি সাবস্ক্রাইব করে রাখবেন সেসব চ্যানেলের ভিডিওগুলো আপনাকে ক্রমাগত দেখাতে থাকবে। এখন আপনার সাবস্ক্রাইব করা চ্যানেলগুলো যদি হয় সব ইসলামিক চ্যানেল, তাহলে অশ্লীল ভিডিও আপনার সামনে আসার তেমন কোনো সুযোগ পাবে না। এই পদ্ধতিটা অনেক কার্যকর। পবিত্র রাখা যায় নিজের ইউটিউব পরিবেশ। সাবস্ক্রাইব করতে হলে আগে আপনাকে ইউটিউবে সাইন ইন (লগ ইন) করে নিতে হবে। আর এ জন্য একটি জি-মেইল আইডি থাকতে হবে। ইউটিউবে যাবার পর ডানপাশে কোণায় দেখবেন “Sign In” লেখা থাকে। “Sign In” এ ক্লিক করে মেইল আইডি দিয়ে লগ ইন করার পর বিভিন্ন ইসলামিক ভিডিও সার্চ দিয়ে তাঁদের চ্যানেলগুলো সাবস্ক্রাইব করে নিন। একবারে দশ বারোটা করে নিতে পারেন যাতে করে পরে এগুলোর ভিড়ে অন্য অশ্লীল ভিডিও সাজেশন লিস্টে জায়গাই না পায়। এ ছাড়া http://viewpure.com এ গিয়ে কোনো ভিডিওর লিংক পেস্ট করে ভিডিও অ্যাক্সেস করলে কোনো সাজেশান লিস্ট আসিবে না ইন শা আল্লাহ্। অশ্লীলতা থেকে কিছুটা হলেও নিরাপদ থাকা যাবে। অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ইউটিউবের ফিতনাহ থেকে রক্ষা পাবার ব্যাপারে আলোচনা করা হয়েছে নিচের দুটি ভিডিওতে। দেখতে ভুলবেন না।

প্রয়োজনীয় অ্যাপ্স ডাউনলোড লিংক : Youtuze– http://bit.ly/2cqx4QM App Lock– http://bit.ly/1jjyav অনাকাঙ্ক্ষিত অ্যাড ব্লক। অনলাইনের অনাকাঙ্ক্ষিত অ্যাড ভয়ঙ্কর সমস্যার কারণ হতে পারে। তা ছাড়া এসব অনাকাঙ্ক্ষিত অ্যাড ব্রাউযিং স্পিড় অনেক কমিয়ে দেয়। অনলাইনের অযাচিত অ্যাড দূর করার জন্য addons হিসেবে Adblock ব্যবহার করতে পারেন। Firefox, Chrome দুটোর জন্যই পাবেন।

১) Google Chrome এর জন্য Adblock– http://bit.ly/1bia3G6

২) Firefox এর জন্য Adblock– https://mzl.la/2CI98om অ্যান্ড্রয়েড ফোনের জন্য নামিয়ে নিন এ দুটি অ্যাপ্স : AppBrain Ad Detector– http://bit.ly/2dhkPTo Free Adblocker Browser– http://bit.ly/1PG3cNY কীভাবে ডাউনলোড এবং ইন্সটল করতে হবে তা ধাপে ধাপে জানার জন্য দেখুন নিচের ভিডিও টিউটোরিয়াল– http://bit.ly/2CHMJrk 

এ ছাড়া ওয়াইফাই রাউটারের অ্যাড্রেস পরিবর্তন করেও পর্নসাইট ব্লক করা যায়। পাঠকদের অনুরোধ করব আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে (Lost Modesty– http://bit.ly/2Dg7eLR) নিয়মিত চোখ রাখতে। 

কে, কীভাবে ব্যবহার করবেন

১) আপনি নিজে পর্ন-আসক্ত হলে একদম কাছের কোনো বন্ধুর সাহায্য নিয়ে এই অ্যাপ্স/সফটওয়্যারগুলো ইন্সটল করে নিন। শুধু আপনার বন্ধু পাসওয়ার্ড জানবেন, আর কেউ না। এতে চাইলেও আপনি প্রোটেকশন ভেঙে অনলাইনে পর্ন দেখতে পারবেন না। ২) আপনার স্বামী পর্ন-আসক্ত হলে তার সঙ্গে আলোচনা করে নিয়ে অ্যান্সি সফটওয়্যারগুলো ইন্সটল করবেন। শুধু আপনি পাসওয়ার্ড জানবেন। ৩) আপনার সন্তানকে অনলাইন পর্নোগ্রাফি থেকে বাঁচানোর জন্য আপনি অ্যাপ্স/সফটওয়্যার ইন্সটল করবেন। আপনার সন্তানকে কোনোমতেই পাসওয়ার্ড জানতে দেবেন না। অ্যাপ্স সফটওয়্যার ইন্সটল করার আগে তার সাথে খোলাখুলি আলোচনা করে নিলে ভালো হয়। কোনো অ্যাপ বা সফটওয়্যার খুঁজে পেতে, ডাউনলোড করতে কিংবা ইন্সটলে কোথাও কোনো সমস্যা হলে নিশ্চিন্তে যোগাযোগ করতে পারেন আমাদের ফেসবুক 6912697529569: www.facebook.com/lostmodesty অথবা মেইল করতে পারেন এ ঠিকানায় : [email protected] সফটওয়্যার/অ্যাপ্স ইন্সটল করার সাথে সাথে অন্তরে আল্লাহ্ ভয় বাড়ানোর জন্যও চেষ্টা করতে হবে। ইন ফ্যাক্ট অন্যান্য সবকিছুর চেয়ে এটা বেশি জরুরি। নিজের মনে যদি আল্লাহর ভয় থাকে, সদিচ্ছা থাকে, তাহলে অন্য কোনো উপায় ছাড়াও পর্ন-আসক্তি কাটিয়ে ওঠা যাবে ইন শা আল্লাহ্। কিন্তু অন্তরে ব্যাধি দূর না হলে, যত অ্যাম্স-সফটওয়্যার কিংবা টিপস ব্যবহার করুন না কেন, একসময় না একসময় পা ফসকাবেই। ওয়ামা তাউফিকি ইল্লা বিল্লাহ 

বুকমার্ক করে রাখুন 0