চোরাবালি

চোরাবালি 

ব্যাপারটা অনেকটাই “ডিম আগে না, মুরগি আগে?” প্রশ্নের মতো।

পর্ন দেখে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে মানুষ হস্তমৈথুন (Masturbation) করে নাকি হস্তমৈথুন করার জন্য মানুষ পর্ন দেখে? যেটাই হোক না কেন, হস্তমৈথুন আর পর্ন একে অপরের অবিচ্ছেদ্য অংশ।

লেখাটি লিখছি বিশাল বিস্তৃত এক বিষাদ নিয়ে।

কষ্ট হয় যখন দেখি একদল মানুষ হস্তমৈথুনের পক্ষে প্রচারণী চালায়–“ধর্মে নিষেধ করেছে তো কী হয়েছে, বিজ্ঞান আমাদের বলছে এটা শরীরের জন্য উপকারী”, “এর কোনো ক্ষতিকর দিক নেই”, “মাঝে মাঝে হস্তমৈথুন করলে শরীর ভালো থাকে, টেনশন মুক্ত থাকা যায়”–আরও কত কী! পাশ্চাত্যের অনেক দেশে রীতিমতো স্কুলের বাচ্চাদের সেক্স এডুকেশনের নামে এই জঘন্য ব্যাপারটাতে উৎসাহী করে তোলা হয়। দুঃখ লাগে যখন দেখি আমাদের দেশেও মুসলিম নামধারী আল্লাহর কিছু অবুঝ বান্দা এ কাজের পক্ষে ফেইসবুক, ব্লগে লেখালিখি করছে, ভিডিও বানাচ্ছে। আমরা এই লেখায় একটা ধারণী দেয়ার চেষ্টা করব, আপাতদৃষ্টিতে হস্তমৈথুন আসক্তি খুব নিরীহ মনে হলেও কী ভয়ঙ্কর বিয়ে বিষাক্ত এই আসক্তি! প্রথমেই আমরা শুনে নেব এমন কিছু হতভাগ্য ভাইদের 

অন্ধকারের গল্পগুলো, হস্তমৈথুন আসক্তি যাদের ধ্বংসের গভীর এক খাদের কিনারায় দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। তারপর আমরা আলোচনা করব বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে হস্তমৈথুনের ভয়াবহতা নিয়ে। 

.

হস্তমৈথুনে আসক্ত না হলে আমাদের জীবন এমন হতো না! 

এক. 

আমি বাংলাদেশ থেকে বলছি। আট বছর হতে চলল আমি হস্তমৈথুনে আসক্ত। অনেক চেষ্টা করেছি, নোংরা এই কাজ থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখার, কিন্তু পারিনি। মুসলিম হিসেবে সব সময় মনে হয়েছে অন্যদের ইসলামের দাওয়াত দেয়া উচিত আমার। কিন্তু কখনো করা হয়ে ওঠেনি, নিজে তো জানি আমি কতটা খারাপ।আমি নিজের ওপর ঠিকমতো ভরসা করতে পারি না, আত্মবিশ্বাস শূন্যের কোঠায়। সব সময় হীনম্মন্যতায় ভুগি। মানুষজনের সামনে সহজ হতে পারি না। প্রথম প্রথম হস্তমৈথুনে খুব মজা পেতাম। এখন আর পাই না। মাত্র ২০ সেকেন্ড… তারপরেই সব শেষ। অনেকেই আমাকে বেশ পছন্দ করে। তাদের কাছে আমি একজন চমৎকার মানুষ। তারা শুধু আমার বাইরের রূপটাই চেনে; সৎ, ভদ্র, বিশ্বস্ত। আমার অন্ধকার জগৎটা সম্পর্কে যদি তারা জানত! আমি খুব শুকনো, দুর্বল আর ভুলো মনা। মাঝেমধ্যেই অসুখ-বিসুখে পড়ি। বন্ধুরা আমাকে এগুলো নিয়ে খুব করে “পচিয়ে” দেয়। সামনের দিনগুলো নিয়ে আমি চিন্তিত। বিয়ে নিয়ে সব সময় একটা ভয় কাজ করে। যে আসবে সে কেমন হবে! সে কি আমাকে পছন্দ করবে! আমি কি তাকে সুখী করতে পারব…?

দুই.

সেদিন সকালে ভীষণ চমকে গিয়েছিলাম। ঘুম থেকে উঠে আয়নার সামনে দাঁড়িয়েছি অনেকটা মনের খেয়ালেই। অবাক হয়ে দেখি একটা ৬০ বছরের বুড়ো আমার দিকে তাকিয়ে আছে। চেহারার এই হাল দেখে মন খুব খারাপ হয়ে গেল। ৩১ চলছে আমার, যৌবনের মধ্যগগনে, কিন্তু আমার চেহারায় বার্ধক্যের ছাপ স্পষ্ট। আমার বড় দুভাই আছে। একজনের বয়স ৩৯ অন্যজনের ৪৫। কিন্তু আজকাল অপরিচিত যে কেউ আমাকে তাদের আংকেল ভেবে বসে! অবশ্য আমার এ অবস্থার জন্য আমি কাউকে দোষারোপ করতে চাই না। দোষী আমি নিজেই। আমি । নিজেই কি নিজেকে তিলে তিলে ধ্বংস করার মতল নেশায় নামিনি গত ১৭ বছর ধরে? ১৪ বছর বয়স থেকে হস্তমৈথুন করা শুরু করেছিলাম। এখন আমার বয়স ৩১। ১৭ বছর! নিজেকে ধ্বংস করার ১৭ বছর! একদিন সব ছিল আমার; ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি, মোটা বেতনের চাকরি, সুন্দরী স্ত্রী। এখন আমি নিঃস্ব! চোখে খুবই কম দেখি, টাইপিং এ প্রচুর ভুল হয়। স্মৃতিশক্তি একেবারেই কমে গেছে, কিছুই মনে থাকে না; সম্পূর্ণ অনিপ্রোডাক্টিভ। গত বছর অফিস থেকে ছাঁটাই করে দিয়েছে। বউটাও ছেড়ে গেছে। ভালো থাকুক সে, এই কামনা করি। আমি আর কতটুকুই-বা সুখী করতে পারতাম তাকে! আমি শেষ হয়ে গেছি। বেঁচে থাকার ইচ্ছে মরে গেছে।

হস্তমৈথুন আসক্তি আপনার কী ক্ষতি করছে আপনি টেরও পাবেন না, কিন্তু যখন বুঝবেন আসক্তির লাগাম টেনে ধরা দরকার, তখন অনেক দেরি হয়ে যাবে। কিছু করার থাকবে না। পায়ে পড়ি আপনাদের, দয়া করে নিজেকে বাঁচান হস্তমৈথুন থেকে। নিজেই। নিজেকে শেষ করে ফেলবেন না। 

বুকমার্ক করে রাখুন 0